ধানের সাথে এ কেমন শত্রুতা-কাদঁছেন নওগাঁর নিয়ামতপুরের কৃষক নূরনবী

0
21

 

সিরাজুল ইসলামঃ কাঁদছেন নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলার ভাবিচা ইউনিয়নের কয়াশ পশ্চিমপাড়ার নিরিহ গরিব কৃষক মৃত- খয়ের আলী সরকারের ছেলে নূরনবী সরকার। কাঁদার কারণ হচ্ছে তার কষ্টে রোপনকৃত ৩ বিঘা জমির বোরো ধান প্রতিপক্ষরা তাঁকে সর্বশান্ত করতে কিটনাশক প্রয়োগ করে ঝলসিয়ে দিয়েছে। প্রতিপক্ষরা উচ্চ কন্ঠে  বলে বেড়াচ্ছেন ধান ঝলসানোর কথা।

এ বিষয়ে নূরুন নবী বিচার চেয়ে ধরনাও দিচ্ছেন বিভিন্ন জনের কাছে। কিন্তু কোথাও বিচার না পেয়ে অবশেষে প্রতিবেশী মৃত- বাহার আলী সরকারের ছেলে আনিছার সরকার (৫৮), আনিছার সরকারের ছেলে একরামুল সরকার (২৮) এবং অচরত সরকার (৩৫) এ ৩ জনের নাম উল্লেখ করে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, নূরনবীর সাথে অভিযুক্ত ব্যক্তিদের দীর্ঘদিন যাবত পারিবারিক কলহ চলে আসছিল। তারই জেরে নূরনবী গত ২১ মার্চ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছিল। তাতে অভিযুক্ত ব্যক্তিরা ক্ষান্ত না হয়ে আক্রশমূলক প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য ২২ এপ্রিল রাতে আগাছ নিধনের গামাক্সিন কীটনাশক আধাপাকা বোরো ধানে প্রয়োগ করে প্রায় ৩ বিঘা জমির ধান সম্পূর্ণ নষ্ট করে দেয়।

এ বিষয়ে ভুক্তভোগী নূরনবী এ প্রতিবেদককে বলেন, আমার সাথে আমার চাচা আনিছারের জায়গা জমি নিয়ে বিরোধ চলে আসছিল। সম্প্রতি আমি উপজেলার চক দেওলিয়া মৌজার ১ একর ৩৩ শতাংশ সম্পত্তি ২০১৪ সালে আমার ছোট চাচা মনছের আলীর নিকট থেকে ক্রয় করে ভোগ দখল করে আসছি। ৭ বছর পর তার ভাই আনিছার রহমান ঐ সম্পত্তির ২২ শতাংশ সম্পত্তি নিজের বলে দাবী করে। সেই শত্রুতায় আমার কষ্টের লাগানো ৩ বিঘা বোরো ধান কীটনাশক দিয়ে পুড়ে সম্পূর্ন নষ্ট করে দেয়। এত আমার প্রায় ১ লক্ষ ২০ হাজার টাকা ক্ষতি হয়েছে। আমি তাকে বিষয়টি বলগে গেলে সে আমাকে মারা হুমকি প্রদান করে।
এ বিষয়ে নিয়ামতপুর থানার অফিসার ইন চার্জ হুমায়ন কবির বলেন, লিখিত অভিযোগ পেয়েছি। তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here