পূর্ব শত্রুতার জের ধরে হামলার শিকার সাংবাদিকের ছেলে মাহী

0
15

 

আনোয়ার হোসেনঃ

বোরহানউদ্দিন উপজেলার টবগী ইউনিয়নের ৩ নং ওয়ার্ডে পরিবার সহ বসবাস করেন -সাংবাদিক মেহেদী হাসান মোর্শেদ।

সাংবাদিক মেহেদী হাসান মোর্শেদ অভিযোগ করে জানান-

গত ২০-০৮-২০২১ ইং তারিখ সন্ধ্যা ৭ ঘটিকার সময় মোঃ মাহাবুব আলম মাহী কিছু কেনাকাটার জন্য মনিরাম বাজার গেলে স্থানীয় জাহাঙ্গীরের ছেলে মোঃ জিহাদ (২২)পূর্বের শত্রুতার জের ধরে জাফরের চায়ের দোকানের পাশে নিরিবিলি জায়গায় নিয়ে মাহিকে এলোপাতাড়ি মারধর করে জখম করেন জাহাঙ্গীরের ছেলে জিহাদ।

মাহাবুব আলম মাহীর চিৎকার শুনে স্থানীয় লোকজন এসে মাহীকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে রিক্সা যোগে বাড়ীতে পাঠিয়ে দেন। ঘটনাটি সাংবাদিক মোর্শেদ জানতে পেরে রাত আনুমানিক ১১ টার দিকে জাহাঙ্গীরের বাড়িতে যান, সেইখানে গিয়ে জাহাঙ্গীরের ভাই আলমগীর ও বাড়ীর অন্যান্য ব্যক্তবর্গকে জানান। জাহাঙ্গীর কথার কাটাকাটির এক পর্যায়ে সাংবাদিক মোর্শেদের উপর চওড়া হয়ে মোর্শেদের মোবাইল নিয়ে টানাহেঁচড়া করেন।এবং গালমন্দ করলে বাড়ির লোকজন মোর্শেদকে বুঝিয়ে পাঠিয়ে দেয়। পরদিন সকাল ১০ ঘটিকার সময় এ বিষয়টি নিয়ে স্থানীয় লোকজন মনিরাম বাজার বসে। সুমন, রাসেল সহ স্হানীয় লোকজন ঘটনাটি শুনার পর দু’পক্ষকে মিলমিশ করিয়ে দেন। বিষয়টি এখানেই শেষ নয় , গতকাল সাংবাদিক মোর্শেদের ছেলে একা বাসা থেকে বের হলে জিহাদের সাথে দেখা হয়, জিহাদ বলে তোরে মারছি, কি হয়েছে ? তবে তোরে আবারও একা কোথায় নিরিবিলি পেলে মারধর করবো এই বলে হুমকি দেয়।

জিহাদের বাবা জাহাঙ্গীর আবুল মিয়ার বাজারে চায়ের দোকানে বসে লোকজনের সাথে সাংবাদিক মোর্শেদের ব্যক্তিগত চরিত্র নিয়ে নানারকম কথা বলে বেড়ায়। উক্ত বিষয় স্থানীয় লোকজনকে জানাইলে তারা ব্যাপারটা এড়িয়ে যান।

আমার ছেলে মাহীর নিরাপত্তার কথা চিন্তা করে, আজ ২৩-০৮-২০২১ তারিখে বোরহানউদ্দিন থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করি।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here