সাংবাদিক তুহিনের নিঃশর্ত দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

0
7

 

মোঃআনোয়ার হোসেনঃ

ঢাকা, শনিবার, ২৫ ডিসেম্বর, ২০২১: রাজধানীর পল্লবী থানার (ওসি) ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা পারভেজ ইসলামের অপকর্ম, ঘুষ, নির্যাতনের সংবাদ প্রকাশ করায় মিথ্যা ও সাজানো মামলায় গ্রেফতার সাপ্তাহিক নতুন বার্তা সম্পাদক ইউসুফ আহমেদ তুহিনের নি:শর্ত মুক্তির দাবি জানিয়েছে মিরপুর সম্মিলিত সাংবাদিক জোট।

শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত এক মানববন্ধনে এ দাবি জানানো হয়।

মানববন্ধনে দৈনিক কালেরকণ্ঠ জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক লায়েকুজ্জামান লায়েক বলেন, আমরা সাংবাদিকরা পুলিশের মুখোমুখি দাঁড়াতে চাই না। সাংবাদিক তুহিন সমাজের অসংগতি তুলে ধরতে গিয়ে পল্লবী থানা পুলিশের রোষানলে পড়েছেন। তুহিনের বিরুদ্ধে যে মামলাটি হয়েছে এই মামলার কোনো বাদী নেই। সেই মামলাটি অস্তিত্বহীন একটি বাদীর মামলা। এতে পুলিশের ভাবমূর্তি সমাজের বাড়ে না।

পুলিশ তাদের ভাবমূর্তি বাড়ানোর চেষ্টা করছে, সে সময় এরকম দুই-চারজন পুলিশ অফিসার বিভিন্ন থানায় রয়েছে। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রাজনৈতিক মত-আদর্শের কিছু ক্যাডারদের পুলিশে চাকরি দেওয়া হয়েছে। সেই সমস্ত ক্যাডাররা এখনো বিভিন্ন থানার ওসি। তারা ইচ্ছাকৃতভাবে বিভিন্ন ঘটনা ঘটিয়ে সাংবাদিক ও সাধারণ মানুষকেও সরকারের বিরুদ্ধে ক্ষেপিয়ে তোলার চেষ্টা করছে।

তিনি আরো বলেন, পল্লবী থানার ওসি পারভেজ ২০০৩ সালের ব্যাচ। ছাত্রদলের ক্যাডার ছিল, আমি জেনেশুনে বলছি। যারা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা আছেন বিতর্কিত পুলিশের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করুন। সাংবাদিকরা পুলিশের বিরুদ্ধে নয়,অপরাধীর বিরুদ্ধে। অপরাধ যেই করুক সাংবাদিকরা তার বিরুদ্ধে।

অপরাধ যেই করবে সে সমাজের বিরুদ্ধে। অপরাধ যদি পুলিশ করে আমি সেই নির্দিষ্ট পুলিশের বিরুদ্ধে। সমাজের অপরাধীর বিরুদ্ধে সাংবাদিকদের কাজ। আমরা সেই কাজটাই করছি। অনুরোধ জানিয়ে বলছি অস্তিত্বহীন মামলা, বাদী বিহীন মামলা ও ওসির অপকর্মের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের স্ট্যাটাস দেওয়ার কারণে একজন দেশের নাগরিককে হয়রানি করার যুক্তি থাকতে পারে না।

মানববন্ধনে বিএমএসএফ কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর বলেন, সারাদেশে অব্যাহত ভাবে সাংবাদিক নির্যাতন-মামলা, হামলার ঘটনা ঘটছে। এ থেকে পরিত্রাণ পেতে সাংবাদিক সুরক্ষা আইন, সাংবাদিক নিয়োগ নীতিমালা প্রণয়নসহ ১৪ দফার বিকল্প নেই। সাংবাদিক তুহিনের সাথে পল্লবী থানার পুলিশ যে ঘটনা ঘটিয়েছে এতে করে বুঝা যাচ্ছে পল্লবীর সাংবাদিকরা নিরাপদ নয়।

তিনি আরো বলেন, পাবনার বেড়ায়’ ভুয়া ম্যাজিস্ট্রেট আটক ওসির সহায়তায় ছেড়ে দেয়া’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করায় কথিত একটি মারামারি মামলায় ওখানকার উজ্জল নামের এক সাংবাদিককে আসামী করা হয়েছে। মামলা দায়েরের ৫দিন পর সাংবাদিক উজ্জল জানতে পারেন যে ওই মামলায় আসামী করা হয়েছে। এই ঘটনায় হতবাক ঐ এলাকার সাংবাদিকরা।

ওসি পারভেজ পল্লবীর সংবাদকর্মীদের যেকোনো সময়, যে কোনো মিথ্যা ও ষড়যন্ত্রমূলক মামলায় গ্রেফতার হতে পারে আশঙ্কার কথা জানায়। আমরা সাংবাদিক তুহিনের নি:শর্ত মুক্তি চান বক্তারা।

মানববন্ধনে ক্রাইম রিপোর্টার অ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাব) সাবেক অর্থ সম্পাদক ও দৈনিক ইনকিলাবের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক আজিজুল হাকিমের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন দৈনিক কালেরকণ্ঠের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক লায়েকুজ্জামান লায়েক, বাংলাদেশ
মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর, মিরপুর সম্মিলিত সাংবাদিক জোট সভাপতি মিজানর রহমান মোল্লা, সংগঠনটির সাধারণ সম্পাদক এসএম জহিরুল ইসলাম প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here