ঠাকুরগাঁওয়ে চুরির অভিযোগে গরু মালিক নিজেই জেলহাজতে

0
7

মজিবর রহমান শেখঃ
ঠাকুরগাঁও জেলার সদর উপজেলার শুকানপুকুরী ইউনিয়নের তেওয়ারীগাঁও গ্রামের বাসিন্দা গোলাম হোসেন (৫৬) নিজ গরু চুরির অভিযোগে জেলহাজতে রয়েছেন। বড় ছেলের বিয়ের পরিকল্পনা করে বাড়িতে পালন করা দুটি গরু বিক্রি করেন স্থানীয় গরু ব্যবসায়ী হাসেম আলীর (৪৬) কাছে। নিজ গরু বিক্রয় করে মালিক বনে গেলেন চোর এমন কথা এখন ঐ গ্রামের মানুষের মুখে মুখে। সোমবার (৩ জানুয়ারি) দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলাধীন মরিচা ইউনিয়নের গোলাপগঞ্জ বাজারে গরুর মালিক গোলাম হোসেন সহ গরু ব্যবসায়ীদের আটক করে পুলিশ।

ছেলের বিয়ে দেওয়ার জন্য চার হাজার টাকা অগ্রিম নিয়ে বাকি এক লক্ষ বিশ হাজার টাকায় তার বাড়িতে পালন করা দুইটি গরু বিক্রি করে দেওয়ার জন্য স্থানীয় গরু ব্যবসায়ী হাসেম আলী সহ ৪ জনকে দেয়। ব্যবসায়ীরা গরু দুটি গত সোমবার দিনাজপুরের বীরগঞ্জ উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের গোলাপগঞ্জ বাজারে বিক্রি করার জন্য নিয়ে যান। বিক্রি করতে গিয়ে ব্যবসায়ীরা গরু দুটি চুরি করে এনেছে একথা শুনে বাজারে ছুটে যান গরুর মালিক গোলাম হোসেন। কিন্তু পুলিশ কোন তদন্ত না করে গরুর মালিক গোলাম হোসেন সহ ব্যবসায়ীদের আটক করে ঠাকুরগাঁও সদর থানায় নিয়ে যান।
প্রতিবেশীরা জানান, গোলাম হোসেন ৪/৫ মাস আগে গড়েয়া হাট থেকে গরুটি ক্রয় করেন। অনেক কষ্ট করে তিনি গরুটি লালন-পালন করেন। নতুন ঘর দিবেন বলে তিনি গরু বিক্রি করেছেন। কিন্তু আজকে তিনি নিজের গরু বিক্রি করতে গিয়ে চোর হয়ে গেল। এটা কেমন অত্যাচার? রফিকুল নামে এক প্রতিবেশী বলেন, উনারা আর আমরা একসাথে গরু কিনছি গড়েয়া বাজার থেকে। আমরা গরীব লোক বলে কোন বিচার নাই? গরু পালতে গিয়ে কি আমরা চোর হয়ে গেলাম?

গোলাম হোসেনের স্ত্রী হালিমা খাতুন বলেন, খেয়ে না খেয়ে ঋণ করে পাঁচ মাস আগে গড়েয়া বাজার থেকে দুটি গরু কিনেছিলাম। এখনো সেই ঋণ শোধ হয়নি। প্রতি সপ্তাহে কিস্তি দিতে হয়। ছেলের বিয়ে দিবো বলে নতুন ঘর তৈরী করার জন্য আমরা গরু দুটো বিক্রি করি। বিক্রি করতে গিয়ে আজকে আমার বৃদ্ধ স্বামী চোর হয়ে জেলখানায়।

এ ব্যাপারে স্থানীয় চেয়ারম্যান আনিসুর রহমান বলেন, আমি নির্বাচন চলাকালীন সময়েও গোলাম হোসেনের বাড়িতে গিয়ে দেখি তিনি গরু গুলো লালন-পালন করেন। আমি এর আগেও পাঁচ বছর চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব থাকাকালে গোলাম হোসেনের বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ পাইনি। তিনি অত্যন্ত সৎ, সরল মানুষ। তিনি কোন ধরনের খারাপ কাজের সাথে লিপ্ত না। তিনি ষড়যন্ত্রের স্বীকার।

ঠাকুরগাঁও সদর থানা পরিদর্শক (ওসি) তানভিরুল ইসলাম বলেন, গত ২ জানুয়ারী বাদি আতাবুর রহমানের বাসা হতে ৫ টি গরু চুড়ি হয়। সেই মর্মে বাদি থানায় এজাহার দাখিল করলে মামলা হয়। পরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খবর পায় বাদি গোলাপগঞ্জ বাজারে একটি গরু শনাক্ত করেছে। পরে পুলিশ গিয়ে গরু সহ ৫ জনকে ধরে নিয়ে এসে আদালতে সোপর্দ করে।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here