,


শিরোনাম:
«» বালিয়াডাঙ্গীতে ৫৩ মধ্যে ৪৮ টি ভূমি-গৃহহীন পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার উপলক্ষে ঘর- প্রেস ব্রিফিংয়ে এউএনও «» ঠাকুরগাঁওয়ে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা «» আশুলিয়া থানা আওয়ামীলীগের আয়োজনে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত «» ঠাকুরগাঁওয়ে মুজিববর্ষ ও ঈদ উপহার উপলক্ষে আরও ২৬১২ভূমিহীন পাচ্ছেন জমি ও নতুন ঘর «» আদমদীঘি গৃহ নির্মাণ কাজের অগ্রগতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন «» আদমদীঘিতে ব্রাকের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত «» প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের অপেক্ষায় নওগাঁর সাপাহারে ৪৫ টি গৃহহীন পরিবার উদ্বোধন উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং «» মাদ্রাসার এতিম শিশুদের নিয়ে সেভিয়ার ফাউন্ডেশন রাজশাহী ইউনিট এর ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত «» কে এই মহা ক্ষমতাধর শলোক মোল্লা- হরিণাকুন্ডুতে সাংবাদিক কে প্রাণনাশের হুমকি,থানায় অভিযোগ দায়েরঃ বিএমএসএস’র পক্ষে নিন্দা, প্রতিবাদ ও গ্রেফতার দাবী «» সাংবাদিক নির্যাতন ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে নওগাঁয় বিএমএসএফের মানববন্ধন

নীলফামারীতে গৃহবধুকে ফাঁদে ফেলে অশ্লীল ছবি ফেসবুকে আপলোড -লোকলজ্জার ভয়ে একঘরে রয়েছে পুরো পরিবার

 নীলফামারী থেকে মোঃ রাশেদুল ইসলামঃ  নীলফামারীতে গৃহবধুকে ফাঁদে ফেলে অশ্লীল ছবি ফেসবুকে আপলোড,ধরা ছোঁয়ার বাইরে আপলোডকারী। নীলফামারীতে গৃহবধু ইলাবতীকে (ছদ্দনাম) ফাঁদে ফেলে অশ্লীল ছবি ধারণ করে ফেসবুকে আপলোড করার ঘটনায় লোকলজ্জার ভয়ে একঘরে রয়েছে পুরো পরিবার। ধরা ছোঁয়ার বাইরে ফেসবুকে আপলোডকারী মমতাজুল ইসলাম। ঘটনাটি ঘটেছে সদর উপজেলার গোড়গ্রাম ইউনিয়নের ধোপাডাঙ্গা ডাঙ্গাপাড়া এলাকায়। মমতাজুল ইসলাম চওড়া বড়গাছা ইউনিয়নের ঢেঁপড়ডাঙ্গা এলাকার আবুল কাশেমের ছেলে। এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, ছদ্দনাম ইলাবতীর স্বামীর সাথে দীর্ঘদিনের বন্ধুত্বের খাতিরে প্রায়ই তার বাড়িতে যাওয়া আসা করে মমতাজুল ইসলাম। সুসম্পর্কের একপর্যায়ে গৃহবধুকে ভুলিয়ে ভালিয়ে তার নিজের মোবাইল দিয়ে অশ্লীল ছবি ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে আপলোড করে মমতাজুল ইসলাম। পরবর্তীতে এই ছবিগুলো সমাজে ভাইরাল হলে ইলাবতী ও তার স্বামী সহ পরিবারের উপর সামাজিক ও মানসিক চাপ সৃষ্টি হয়। হোটেল শ্রমীক স্বামী লোকলজ্জার ভয়ে কাজে যোগদান করতে পারছে না। অথচ অনায়াসে ঘোরা ঘুরি করছে প্রভাবশালী মমতাজুল ইসলাম। এলাকার সচেতন মহল, ইবনে মিজান সম্রাট, আলমগীর, লিমন, বলেন, ফেসবুকে অশ্লীল ছবি আপলোড করা একটি জঘন্যতম অপরাধ। প্রভাবশালী মমতাজুল ইসলামের দেওয়া তিন থেকে চার লাখ টাকার বিনিময়ে এলাকার মাতব্বর ,ইউপি চেয়ারম্যান, স্থানীয় ইউপি সদস্য বিষয়টি ধামাচাপা দেওয়ার জন্য নাম মাত্র গ্রাম্য শালিশের মাধ্যমে তাকে বাঁচিয়ে দেওয়ার অপকৌশল চালায়। সেইসাথে এলাকার আবুল খায়ের বিটু নামের একজন মাত্র ষাট থেকে সত্তর হাজার টাকা দিয়ে জোর পূর্বক মিমাংশা হয়েছে মর্মে শালীশি কাগজে স্বাক্ষর নেয় ইলাবতির পরিবারের কাছ থেকে। যার কারণে আজ লজ্জায় একঘরে পুরো পরিবার। নারীদের জীবন নিয়ে ছিনিমিনি খেলা এই সমস্ত লোভী হায়নার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তির দাবী জানায় সচেতন এলাকাবাসী। ১ নং চওড়া বড়গাছা ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুল্লা আল ইমরান বলেন, ফেসবুকে গৃহবধুর অশ্লীল ছবি আপলোড করায় মেয়েটির সম্মান খুন্ন হয়েছে। আর কোন নারীর সম্মান ক্ষুন্ন করতে না পারে তাই মমতাজুল ইসলামের উপযুক্ত শাস্তি কামনা করছি। ২ নং গোড়গ্রাম ইউনিয়ন চেয়ারম্যান রেয়াজুল ইসলাম বলেন, আমার এলাকার গৃহবধুর ছবি ফেসবুকে আবলোড করার ঘটনার বিষয়টি আমি সদর থানা ওসির কাছ থেকে জানতে পারি এবং তিনি একটি মোবাইল নাম্বার চাইলে আমি ওসিকে নাম্বার দিয়ে সহযোগীতা করি। এরপর কি হয়েছে আমি জানি না। এ বিষয়ে জেলা পুলিশ সুপার মোহাম্মদ মোখলেছুর রহমান বিপিএম,পিপিএম বলেন, ফেসবুকে একজন নারীর অশ্লীল ছবি আপলোড করা মারাত্তক অপরাধ। থানায় অভিযোগ আসলে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ