,


শিরোনাম:
«» বালিয়াডাঙ্গীতে ৫৩ মধ্যে ৪৮ টি ভূমি-গৃহহীন পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ উপহার উপলক্ষে ঘর- প্রেস ব্রিফিংয়ে এউএনও «» ঠাকুরগাঁওয়ে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রস্তুতিমূলক সভা «» আশুলিয়া থানা আওয়ামীলীগের আয়োজনে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত «» ঠাকুরগাঁওয়ে মুজিববর্ষ ও ঈদ উপহার উপলক্ষে আরও ২৬১২ভূমিহীন পাচ্ছেন জমি ও নতুন ঘর «» আদমদীঘি গৃহ নির্মাণ কাজের অগ্রগতি নিয়ে সংবাদ সম্মেলন «» আদমদীঘিতে ব্রাকের দোয়া ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত «» প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের অপেক্ষায় নওগাঁর সাপাহারে ৪৫ টি গৃহহীন পরিবার উদ্বোধন উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসনের প্রেস ব্রিফিং «» মাদ্রাসার এতিম শিশুদের নিয়ে সেভিয়ার ফাউন্ডেশন রাজশাহী ইউনিট এর ইফতার ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত «» কে এই মহা ক্ষমতাধর শলোক মোল্লা- হরিণাকুন্ডুতে সাংবাদিক কে প্রাণনাশের হুমকি,থানায় অভিযোগ দায়েরঃ বিএমএসএস’র পক্ষে নিন্দা, প্রতিবাদ ও গ্রেফতার দাবী «» সাংবাদিক নির্যাতন ও মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে নওগাঁয় বিএমএসএফের মানববন্ধন

শ্রীপুরে কিস্তি চাপে আত্মহননকারীর তিন সন্তানের পাশে ব্যবসায়ী সাদ্দাম

জাহিদ হাসান জিহাদঃ  গাজীপুরের শ্রীপুরে পিদিম ফাউন্ডেশন নামক এনজিওর কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারায় আত্মহত্যা করে তেলীহাটি ইউনিয়ন এর ডোমবাড়িচালা গ্রামের প্রতিবন্ধী রুবেল মিয়া। রুবেল মিয়া তিন সন্তানের জনক ছিলেন। এক কন্যা সন্তান ও দুই ছেলে সন্তান রেখে আত্মহনন করেন তিনি। ছোট ছোট তিন ছেলেমেয়ের পাশে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন পুষ্পদাম রিসোর্ট এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাদ্দাম হোসেন অনন্ত। বৃহস্পতিবার (৬ মে) দুপুরে সাদ্দাম হোসেন তিন ছেলে-মেয়েকে বাড়ি থেকে নিজের প্রাইভেটকারে মাওনা চৌরাস্তা শপিংমল থেকে তাদের পছন্দমত নতুন জামাকাপড়,জুতা কিনে দেন। নতুন জামা কাপড় পেয়ে ব্যাপক খুশি শাহাদাত, শাহজাদী ও আরাফাত। ঈদ সামগ্রী কিনে নিজের গাড়িতে করে তাদের বাড়ি পৌঁছে দেন। ব্যবসায়ী সাদ্দাম হোসেন (অনন্ত) বলেন, রুবেল আত্মহত্যা করায় ছেলে মেয়েগুলো এতিম। তাই ঈদ উপলক্ষে তাদের পাশে থেকে সহযোগিতা করার চেষ্টা করেছি। তাদের পাশে থাকব আগামী দিনেও ইনশাআল্লাহ। টাকার অভাবে যাতে তাদের লেখাপড়া বন্ধ না হয় তার জন্য সব সময় সহযোগিতা করবো। গত ১০ই মার্চ মেয়াদ শেষ হলে ঋণ পরিশোধ করতে না পারায় উৎকন্ঠায় ভূগছিলেন। গত বুধবার (২৮ এপ্রিল) পিদিম ফাউন্ডেশনের মাঠকর্মী নাঈম বাড়িতে এসে ঋণের টাকার জন্য চাপ প্রয়োগ করেন। পরে রুবেল শনিবার (১ মে) ঋণের টাকা পরিশোধে আশ্বাস দিলে মাঠকর্মী চলে যান। রুবেলের স্ত্রী সেলিনা আক্তার বলেন, গত শনিবারও কোন টাকা জোগাড় করা সম্ভব হয়নি। মাঠকর্মী আসলে তাকে কয়েকঘন্টা পর আসতে বলেন রুবেল। এনিয়ে তার স্বামীর মধ্যে হতাশা তৈরী হয়েছিল। বিভিন্ন জায়গায় ঘুরেও টাকা সংগ্রহ করতে না পারায় শনিবার দুপুরে সে ঘরে থাকা কীটনাশক পান করে। বাড়ির উঠানে গোঙানীর শব্দ পেয়ে তাকে উদ্ধার করে চিকিৎসার জন্য শ্রীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পথে সে মারা যায়। উল্লেখ্য, গত শনিবার (২ মে) বিকেলে ডোমবাড়ীচালা গ্রামের নিজ বাড়িতে বিষপাণে আত্মহত্যা করেন রুবেল। নিহত রুবেল ওই গ্রামের মোতালেব হোসেনের ছেলে

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ