,


শিরোনাম:
«» বাবার ওপর অভিমান করে কিশোরের আত্মহত্যা «» ঠাকুরগাঁওয়ে মাদক মামলায় ৩ জনের যাবজ্জীবন কারাদণ্ডাদেশ «» নাটোরের বাগাতিপাড়ায় বাবা-ছেলে এস এসসি পরীক্ষার্থী «» ঠাকুরগাঁওয়ে হোসেনগাঁও দাখিল মাদ্রাসায় পিয়ন পদের আশায় ১৬ শতাংশ জমি দান, চকুরি না পাওয়ায় জমি দখল «» ঠাকুরগাঁওয়ে রানীশংকৈল উপজেলায় আইন শৃঙ্খলা কমিটির সভ অনুষ্ঠিত «» রাজশাহীতে বীর মুক্তিযোদ্ধার উপর মিথ্যা অভিযোগ «» নওগাঁয় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী ও অটিস্টিক বিদ্যালয়ের শিশুদের মাঝে সাবান বিতরণ করলেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর «» বাঘায় প্রধানমন্ত্রীর ৭৬ তম জন্মদিন উপলক্ষে আলোচনা সভা «» বিশ্ব বসতি দিবস উদযাপন উপলক্ষে বিভাগীয় কমিশনারের প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত «» রাজশাহীতে আন্তর্জাতিক তথ্য দিবসে আলোচনা সভা

আদমদীঘি সান্তাহার পৌর শহরে গণহত্যা ও কালো দিবস পালন

হেদায়তুল,নয়ন(বগুড়া)আদমদীঘি প্রতিনিধিঃ

বগুড়ার আদমদীঘি উপজেলার সান্তাহার পৌর শহরে গণহত্যা ও কালো দিবস পালন করা হয়।গত শুক্রবার সন্ধ্যায় সাড়ে ৭টায় পৌর শহরের রেলগেটের স্বাধীনতা মঞ্চ চত্বরে মোমবাতি জ্বালানোর মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু করা হয়। পরে ১৯৭১ সালের এই দিনে পাক হানাদার বাহিনীর হাতে সান্তাহারে নিহত সকল শহীদের স্বরণে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টায় পুরো শহরে ১মিনিট বিদ্যুৎ সংযোগ বন্ধ করে নিরবতা পালন করা হয়।এরপর ১৯৭১ সালের ২২ এপ্রিল পাক হানাদার বাহিনীর হাতে নিহত ওই সকল শহীদদের স্বরণে সেখানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

আদমদীঘি উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম চম্পার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, সান্তাহার পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবুল কাশেম, সান্তাহার পুলিশ ফাঁড়ির পরির্দশক আরিফুল ইসলাম, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি ফিরোজ হোসেন চন্দন, পৌর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান মুন্না, সান্তাহার ইউনিয়ন স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি আবদুর রাজ্জাক, সাংবাদিক নেহাল আহম্মেদ প্রান্ত, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক তৌফিকুর রহমান সোহাগ, ছাত্রলীগ নেতা তানভী রহমান তনু প্রমুখ।

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজেদুল ইসলাম চম্পা বলেন, ১৯৭১ সালের ২২ এপ্রিল পাক হানাদার বাহিনীর হাতে নিহত ওই সকল শহীদদের স্বরণে সান্তাহার গণহত্যা ও কালো দিবস পালনের সরকারী ভাবে স্বীকৃতি দিতে প্রশাসনের প্রতি দাবি জানানো হয়।উল্লেখ্য, ১৯৭১ সালের ২২ এপ্রিল পাক হানাদার বাহিনী ট্রেন যোগে সান্তাহার শহরে প্রথম প্রবেশ করে। সে দিনই তারা নির্মম ভাবে গণ হত্যায় মেতে উঠে। তাদের বুলেটের আঘাতে সান্তাহারের জমিদার সুরেন্দ্রনাথ তার স্ত্রী হড়িভবানী দাসী, ব্যবসায়ী নূর চৌধুরীসহ প্রায় আড়াই হাজার বাঙ্গালী নর-নারী সে দিন শহীদ হন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না। পাঠকের মতামতের জন্য কৃর্তপক্ষ দায়ী নয়। লেখাটির দায় সম্পূর্ন লেখকের।
ঘোষনাঃ